বঙ্গবন্ধুর খুনের মদদদাতা ও নেপথ্য কুশীলবদের বিচারের আওতায় আনতে হবে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

210

ঢাকা, ১৯ আগস্ট, ২০১৯ (বাসস) : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর প্রত্যক্ষ খুনিদের বিচার হয়েছে। এখন এই খুনের মদদদাতা ও নেপথ্য কুশীলবদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।
আজ ঢাকায় জাতীয় জাদুঘরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপত্বি করেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় অধ্যাপক এম আনিসুজ্জামান, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম ও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবদুস সামাদ।
মোজাম্মেল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক ও অভিন্ন। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে বিচ্ছিন্ন বা আলাদা করার কোন সুযোগ নেই। পাকিস্তানী শাসকরা বাঙালীর কন্ঠকে দাবিয়ে রাখতে চেয়েছিল। কিন্তু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে সেটা তারা পারেনি।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র অনেক আগেই শুরু হয়। জিয়া-মোশতাকরা ব্ল্যাক মেইল করে মহান মুক্তিযুদ্ধকে বিভ্রান্ত করতে চেয়েছিল।
মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু একজন বড় মাপের নেতা ছিলেন। তিনি আমাদের একটি স্বাধীন দেশ ও সংবিধান দিয়ে গেছেন। জাতীয় অধ্যাপক এম আনিসুজ্জামান বলেন, বঙ্গবন্ধু অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন, মানুষের প্রতি সেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করেছেন, বঙ্গবন্ধু দীর্ঘ ১৩ বছর কারাগারে ছিলেন কিন্তু কোন আপোষ করেননি, বাংলার মানুষের রক্তের সাথে বেইমানি করেননি, ক্ষমতার চেয়ে মানুষের অধিকার আদায়কে প্রাধান্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় এগিয়ে চলেছে।
সভাপতির বক্তব্যে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে ঋণী করে গেছেন। তাঁর ঋণ আমরা শোধ করতে পারবনা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও আদর্শ বাস্তবায়নের মাধ্যমে সে ঋণ কিছুটা হলেও শোধ করা সম্ভব।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে কর্ম দিয়ে সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হবে। প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়ন ও অগ্রগতির পথে এগিয়ে যাচ্ছে এবং আরো এগিয়ে যাবে।

image_printPrint