বিশ্বায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে কাজ করুন : শেখ হাসিনা

297

ঢাকা, ২২ জুন, ২০১৮ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে আন্তরিকভাবে কাজ করার জন্য সরকারি কর্মচারীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, বিশ্বায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা ও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারি কর্মচারীগণ আন্তরিকতা, নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে কাজ করবেন।’
প্রধানমন্ত্রী আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে আজ এক বাণীতে এ কথা বলেন।
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আগামীকাল (২৩ জুন) ‘আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস’ পালন করা হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করে শেখ হাসিনা এ উপলক্ষে প্রজাতন্ত্রের সকল কর্মচারীকে শুভেচ্ছা জানান।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি মনে করেন, এ দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘ট্রান্সফর্মিং গভর্নেন্স টু রিয়েলাইজ দ্যা সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস্’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে।
বর্তমান সরকার স্বচ্ছ ও জবাবদিহিমূলক কর্মকান্ডে বিশ্বাসী- এ কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, জনপ্রশাসনকে জনমুখী ও সেবাবান্ধব করার জন্য সরকার অব্যাহত প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। দেশের উন্নয়নের ধারাকে সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সরকারের অন্যতম অঙ্গ হিসেবে নির্বাহী বিভাগ তথা জনপ্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, ‘আমরা ডিজিটাল প্রশাসনিক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। সরকারি কাজে তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি করা হয়েছে। অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে উন্নয়ন কার্যক্রমকে টেকসই করার জন্য কার্যকর প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনা, বিদ্যমান সেবার সহজীকরণ, ‘রূপকল্প ২০২১’ ও ‘রূপকল্প ২০৪১’ বাস্তবায়নে আমাদের সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’
প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন, সর্বোচ্চ ত্যাগ ও আন্তরিকতার সঙ্গে জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করাই সিভিল সার্ভিস সদস্যগণের মূল দায়িত্ব। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারি কর্মচারী সম্পর্কে বলেন, ‘সরকারি কর্মচারীরা জনগণের খাদেম, সেবক, ভাই।’
শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমান সরকার সরকারি কর্মচারীদের পেশাগত উৎকর্ষ লাভের লক্ষ্যে দেশে-বিদেশে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বৃদ্ধি করছে। প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞানের যথাযথ প্রয়োগ করে দেশের সর্বসাধারণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে।
তিনি বলেন, সরকারি কর্মচারীদের ভালো কাজের স্বীকৃতি ও প্রণোদনা দেয়ার লক্ষ্যে তাঁর সরকারের সময়ই ‘জনপ্রশাসন পদক’ প্রবর্তন করা হয়েছে।
শেখ হাসিনা ‘আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস ২০১৮’র সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

image_printPrint