‘বঙ্গবন্ধু’কে নিয়ে প্রকাশিত সকল বই গবেষণা কেন্দ্রে রাখলে তা হবে অসামান্য কাজ : তথ্যমন্ত্রী

242

ঢাকা, ২৯ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ নর্দার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রে ‘বঙ্গবন্ধু’কে নিয়ে প্রকাশিত সকল বই রাখার জন্য এ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্র স্থাপন একটি অনন্য উদাহরণ। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনের ফলে বঙ্গবন্ধুর ওপর নানা ধরনের গবেষণা ও লেখালেখি হবে।
তিনি বলেন, ‘এই কেন্দ্রে লাইব্রেরী স্থাপন সকলের জন্য একটি মহান উদ্যোগ। লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধুর ওপর প্রকাশিত সকল বই যদি স্থান দেয়া সম্ভব হয়, সেটি হবে অসামান্য একটি কাজ।’
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আজ সোমবার সকালে রাজধানীর বনানীস্থ নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রে ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম-শতবার্ষিকী উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।
‘বঙ্গবন্ধু’কে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি’ হিসেবে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বাঙালিরা কখনো স্বাধীন ছিলাম না। প্রকৃতপক্ষে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই বাঙালি প্রথম একটি জাতি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করার মধ্যদিয়ে নিজেদের শাসন করার অধিকার অর্জন করে। তার আগ পর্যন্ত বাঙালি সব সময় পরের দ্বারা শাসিত হয়েছে।’
তিনি বলেন,‘সিরাজউদ্দৌলার জন্য আমরা সব সময় গর্ব করি। তিনি বাঙালির শেষ স্বাধীন নবাব বটে। তার অন্দরমহলের ভাষা বাঙলা ছিল না। তিনি বাঙালি ছিলেন না। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই প্রকৃতপক্ষে বাঙালি স্বাধীনতা অর্জন করে। এ ঐতিহাসিক সত্যকে বুকে ধারণ করা আমাদের পবিত্র দায়িত্ব।’
নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ মো. আবদুল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী ও নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

image_printPrint