একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় (বাজেট) অধিবেশন সমাপ্ত

545

সংসদ ভবন, ১১ জুলাই, ২০১৯ (বাসস) : একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় (বাজেট) অধিবেশন আজ শেষ হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের অধিবেশন সমাপ্তি সম্পর্কিত ঘোষণা পাঠের মাধ্যমে অধিবেশন সমাপ্তি ঘোষণা করেন।
এর আগে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাপনী ভাষণ দেন। এছাড়া বিরোধীদলীয় উপনেতা বেগম রওশন এরশাদও সমাপনী বক্তব্য দেন।
স্পিকার বলেন, এ অধিবেশনে সরকারি ও বিরোধী দলের সদস্যরা সরব ও প্রাণবন্ত আলোচনার মাধ্যমে বাজেটের ওপর মূল্যবান পরামর্শ দিয়ে একে সমৃদ্ধ করেছেন। তাদের পরামর্শ ও সুপারিশ অনুযায়ী চলতি অর্থবছরের বাজেট সংসদে পাস করা হয়েছে। তিনি অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট পেশকে এক অনন্য দৃষ্টান্ত বলে উল্লেখ করেন।
স্পিকার বলেন, সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ : সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের প্রতিপাদ্যের এবারের বাজেটের বিষয় সর্বত্রই উচ্চারিত হয়েছে। কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারিয়ান এসোসিয়েশনের সর্বশেষ সম্মেলনেও এই প্রতিপাদ্যই বার বার প্রতিধ্বনিত হয়েছে। সে সম্মেলনে ঢাকায় আগত বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যরা ও সিপিএ নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করেছেন। আসলেই গত দশ বছরে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক খাতের নজীরবিহীন উন্নয়ন নিশ্চিত করতে শেখ হাসিনাকে অনেক কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকবেলা করেই আজ বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ।
তিনি সংবিধানকে সর্বোচ্চে স্থান দিয়ে জাতীয় সংসদকে জাতির আশা আকঙ্খার কেন্দ্র বিন্দু হিসাবে আরো কার্যকর প্রতিষ্ঠানে পরিনত করতে দল মত নির্বিশেষে সকল সংসদ সদস্যের প্রতি আহবান জানন।
স্পিকার এই অধিবেশনে সরকারি ও বিরোধীদল নির্বিশেষে সবাই কার্যকর ভূমিকা রাখার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান।
স্পিকার সংসদ অধিবেশন পরিচালনায় সহযোগিতা করায় সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সংসদ উপনেতা, চিফ হুইপসহ হুইপগণ, বিরোধীদলীয় উপনেতা বেগম রওশন এরশাদ, সকল সংসদ সদস্য, ডেপুটি স্পিকার ও সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, মিডিয়া কর্মীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।
একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় (বাজেট) অধিবেশন ১১ জুন শুরু হয়। এ অধিবেশনে গত ১৩ জুন অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট পেশ করেন। ৩০ জুন এ বাজেট পাস করা হয়।
সম্পূরক বাজেট ও মূল বাজেটের ওপর মোট ৫৫ঘণ্টা ৩৬ মিনিট আলোচনা হয়েছে। বাজেটের ওপর মোট ২৬৯ জন সংসদ সদস্য অংশ গ্রহণ করেন। মোট ২১টি কার্যদিবসের এ অধিবেশনে ৭টি সরকারি বিল পাস হয়।
আইন প্রণয়ন সম্পর্কিত কাজ সম্পাদনের পাশাপাশি কার্যপ্রণালী বিধির ৭১ বিধিতে ২৩৫টি নোটিশ পাওয়া যায়। নোটিশগুলো থেকে ১২ টি গৃহীত নোটিশের মধ্যে ০৫টি আলোচিত হয়। এছাড়া ৭১(ক) বিধিতে দুই মিনিটের আলোচিত নোটিশের সংখ্যা ছিল ৭৫টি।
এছাড়া এ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর উত্তর দানের জন্য সর্বমোট ৯৩টি প্রশ্ন পাওয়া যায়। তার মধ্যে তিনি ৪১টি প্রশ্নের উত্তর দেন। মন্ত্রীদের জন্য আনা ২ হাজার ২৭৪ টি প্রশ্নের মধ্যে ১ হাজার ৬৫৮টি প্রশ্নের জবাব দেন।
সমাপনী ভাষণের পর স্পিকার একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় (বাজেট) অধিবেশন সমাপ্তি সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির আদেশ পাঠ করেন।

image_printPrint