বাসস ক্রীড়া-১৬ : ড্রেসিং রুমে সবাই তাকে ভালোবাসে : রোডস

257

বাসস ক্রীড়া-১৬
ক্রিকেট-বাংলাদেশ
ড্রেসিং রুমে সবাই তাকে ভালোবাসে : রোডস
লর্ডস (লন্ডন), ৪ জুলাই ২০১৯ (বাসস) : আগামীকাল দ্বাদশ বিশ্বকাপে অভিযান শেষ হচ্ছে বাংলাদেশের। বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের অন্যতম সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার। কারন এটিই তার শেষ বিশ্বকাপ। ক্যারিয়ারে আগামীকাল বিশ্বকাপ মঞ্চে শেষ ম্যাচ খেলতে নামছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের মহানায়ক মাশরাফি।
তাই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও মাশরাফির শেষ ম্যাচ নিয়ে দলের সবাই বেশ আবেগে-আপ্লুত। ভারাক্রান্ত । কারন মাশরাফির দলের লক্ষ্য ছিলো এবারেরর বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলা। কিন্তু সেটি আর হচ্ছে না। তারপরও ভারাক্রান্ত মন নিয়ে মাশরাফির শেষ ম্যাচে আবেগী পুরো দল বলে জানান বাংলাদেশ ক্রিকেটের কোচ স্টিভ রোডস। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগের দিন, আজ সংবাদ সম্মেলনে রোডস এ কথা বলেন। মাশরাফিকে দলের সবাই ভালোবাসেন বলেও জানান তিনি, ‘মাশরাফির একটি ব্যাপার হলো, ক্রিকেটাররা তাকে অবিশ্বাস্যরকম সম্মান করে। আমি প্রায়ই তার সম্পর্কে যোদ্ধা শব্দটি ব্যবহার করি। কারণ সে দলের জন্য যুদ্ধ করে এবং ছেলেরা তার এমন কাজকে সম্মান করে। এ কারনেই মাশরাফিকে ড্রেসিং রুমের সবাই ভালোবাসে। কাজেই তার শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচে আবেগ স্পর্শ করতেই পারে ছেলেদের।’
বিশ্বকাপের পরই কি মাশরাফি অবসর নিচ্ছেন, এমন প্রশ্ন বড় মঞ্চের মাঝপথেই উঠে গেল। উঠতো না, যদি না ফর্ম কথা বলতো মাশরাফির মত। কিন্তু পুরো আসরে ৭ ম্যাচ খেলে মাত্র ১ উইকেট নিয়েছেন মাশরাফি। নিজের পারফরমেন্সে মন খারাপ মাশরাফির। কিন্তু ভাগ্য তো আর বদলাতে পারবেন না তিনি। আবার যদি ভাগ্যের উপর অনেক বেশি নির্ভর করেন এমন প্রকৃতির মানুষ। তবে মাশরাফি যে চেষ্টা করেননি তা নয়। নিজেকে ফর্মে ফেরাতো সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন মাশরাফি। হামস্ট্রিং ইনজুরি পুরো আসরজুড়ে সামান্য হলেও ঝামেলা করেছে তাকে। তাই জোরালো মাশরাফির অবসর প্রশ্ন। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগেও উঠেছিলো, আজও উঠলো। তাই আগের মত এবারও একই ভঙ্গিতে উত্তর দিলে রোডস, ‘বোর্ডের সাথে কথা বলে নিজেই অবসর নিয়ে ঠিক করবে মাশরাফি। আমি মনে করি, সবার উচিত ব্যাপারটি তার ও বোর্ডের উপরই ছেড়ে দেওয়া। নিজের ব্যাপারে সিদ্বান্ত তাকেই নিতে হবে এবং তাকেই গুছিয়ে ভাবতে হবে।’
বিশ্বকাপের পরই শ্রীলংকা সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। মাশরাফি অবসর নিলে বাংলাদেশ জার্সিতে আর পাওয়া যাবে না। আর অবসর না নিলে, আবারো লাল-সবুজ জার্সিতে দেখা যাবে মাশরাফিকে। পাওয়া বা না পাওয়া গেলে কি হবে সেটিও বললেন রোডস, ‘মাশরাফি আমাদের নেতা। সে যদি শ্রীলংকায় যায় তবে দারুণ হবে। যদি সে অন্যরকম কিছু ভাবে, সেটাও ভালো। এগিয়ে যেতে হবে আমাদের। তারপরও সে আমাদের সঙ্গে থাকলে তা হবে অসাধারণ ব্যাপার। সেটিকে বিবেচনায় নিয়েই শ্রীলংকা ম্যাচ জিততে হবে। সে না থাকলেও এগিয়ে যেতে হবে।’
বাসস/এএসজি/এএমটি/২৩০৫/স্বব