নওগাঁয় ৫৫ হাজার ৩৩৫ হক্টের জমিতে আউশ আবাদ

270

নওগাঁ, ২৫ জুন, ২০১৯ (বাসস) : জেলায় চলতি মওসুমে ৫৫ হাজার ৩৩৫ হেক্টর জমিতে আউশ ধানের আবাদ হয়েছে। বর্তমান সরকারের আউশ চাষের ক্ষেত্রে বিশেষ প্রণোদনার মাধ্যমে কৃষকদের উৎসাহিত করার ফলে আউশ চাষে তাঁদের আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে।
চলতি আউশ মওসুমে জেলার ১৭ হাজার কৃষককে প্রণোদনা হিসেবে ১ কোটি ৪৮ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা মূুল্যের সার ও বীজ বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মনোজিত কুমার মল্লিক জানিয়েছেন জেলার ১৭ হাজার প্রান্তিক কৃষকের প্রত্যেককে ১ বিঘা জমির বিপরীতে ৫ কেজি করে বীজ, ২০ কেজি করে ডিএপি সার এবং ১০ কেজি করে এমওপি সার প্রদান করা হয়েছে। প্রত্যেক কৃষকের বিপরীতে প্রদানকৃত বীজ ও সারের মূল্য ৮৭৫ টাকা।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা ভিত্তিক আউশ আবাদের পরিমাণ হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ২ হাজার ৯শ ৪০ হেক্টর, রানীনগর উপজেলায় ১ হাজার ৪শ হেক্টর, আত্রাই উপজেলায় ৪শ ১৫ হেক্টর, বদলগাছি উপজেলায় ১ হাজার ৪শ ৬৫ হেক্টর, মহাদেবপুর উপজেলায় ১৪ হাজার ৩শ ২৫ হেক্টর, পত্নীতলা উপজেলায় ৯ হাজার ৮শ ৪৫ হেক্টর, ধামইরহাট উপজেলায় ৩ হাজার ৯শ ৪০ হেক্টর, সাপাহার উপজেলায় ১ হাজার ৪শ ৬৫ হেক্টর, পোরশা উপজেলায় ১ হাজার ২শ ৯৫ হেক্টর, মান্দা উপজেলায় ১২ হাজার ২শ ৫০ হেক্টর এবং নিয়ামতপুর উপজেলায় ৬ হাজার ৪৫ হেক্টর।
জেলার ১১টি উপজেলায় উপজেলা ভিত্তিক প্রণোদনাপ্রাপ্ত কৃষকের সংখ্যা হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ২ হাজার জন, রানীনগর উপজেলায় ১ হাজার জন, আত্রাই উপজেলায় ৭শ ২০ জন, বদলগাছি উপজেলায় ১ হাজার ১শ ৫০ জন, মহাদেবপুর উপজেলায় ২ হাজার ৪শ জন, পত্নীতলা উপজেলায় ১ হাজার ৮শ ৫০ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ১ হাজার ১শ জন, সাপাহার উপজেলায় ১ হাজার ৭০ জন, পোরশা উপজেলায় ১ হাজার ১০ জন, মান্দা উপজেলায় ২ হাজার ৯শ জন এবং নিয়ামতপুর উপজেলায় ১ হাজার ৮শ জন।

image_printPrint