নওগাঁয় ৬ হাজার ১শ ৫০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ

278

নওগাঁ, ২২ জুন, ২০১৯ (বাসস): জেলায় চলতি মওসুমে ৬ হাজার ১শ ৫০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। কিছুদিন পূর্বে পাট চাষে কৃষকের আগ্রহ একেবারে কমে যাওয়ায় এ জেলায় পাট চাষ হারিয়ে যেতে বসেছিল। বর্তমান সরকারের পণ্য পরিবহন ও সংরক্ষণে পাটের বস্তা ব্যবহার বাধ্যতামুলক করণসহ বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণের ফলে কৃষি ক্ষেত্রে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় এ জেলায় কৃষকের মধ্যে পাট চাষের আগ্রহ আবার ফিরে এসেছে।
এ্রই মধ্যে জেলার মান্দা উপজেলায় একটি টেক্সটাইল মিল স্থ্পানের কাজ এগিয়ে চলেছে। এ টেক্সটাইল মিলিটি চালু হলে পাটের চাহিদা বেড়ে গেলে এ জেলায় পাট চাষ আরও সম্প্রসারিত হবে বলে মনে করেণ, জেলার ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মাহবুবুর রহমান।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মনোজিত কুমার মল্লিক বলেছেন ,জেলার ১১টি উপজেলার মধ্যে ৮টি উপজেলায় চলতি মওসুমে উল্লেখিত পরিমান জমিতে পাট চাষ হয়েছে। সূত্রমতে নিয়ামতপুর, পোরশা ও সাপাহার উপজেলায় কোন পাট চাষ হয় নি।
অবশিষ্ট ৮ উপজেলায় উপজেলাভিত্তিক পাট চাষের পরিমান হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ১ হাজার ৫৫ হেক্টর, রানীনগর উপজেলায় ৮০ হেক্টর, আত্রাই উপজেলায় ১শ ৫৫ হেক্টর, বদলগাছি উপজেলায় ১ হাজার ৫শ ৮০ হেক্টর, মহাদেবপুর উপজেলায় ১শ ১০ হেক্টর, পতœীতলা উপজেলায় ২শ ১০ হেক্টর, ধামইরহাট উপজেলায় ১ হাজার ২শ ১০ হেক্টর এবং মান্দা উপজেলায় ১ হাজার ৭শ ৫০ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে।
কৃষি বিভাগ জানিয়েছে এ বছর জেলায় “ও” ৯৮৯৭, “ও” ৭২, “ও” ৪ এবং ভারতীয় কিছু জাতের পাট উৎপাদিত হয়েছে। প্রতি হেক্টরে ১১ দশমিক ৪২ েেবল হিসেবে এ বছর জেলায় উল্লেখিত পরিমান জমি থেকে মোট ৭০ হাজার ২শ ৩৩ বেল পাট উৎপাদন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

image_printPrint