অভিজ্ঞতার কারণেই কার্তিক-কোহলি

75

মুম্বাই, ১৫ মে, ২০১৯ (বাসস) : আসন্ন বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে ঋষভ পন্থের জায়গা না পাওয়া এবং দিনেশ কার্তিকের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে দেশটিতে বেশ কিছু দিন যাবতই চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে এবার এর ব্যাখ্যা দিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। অভিজ্ঞতা ও চাপের মুহূর্তে উদ্বেগহীনতার কারণেই পন্থের পরিবর্তে কার্তিককে দ্বিতীয় উইকেটরক্ষক হিসেবে দলে জায়গা পেতে সাহায্য করেছে বলে জানালেন কোহলি।
নির্বাচকদের দৃষ্টিতে মহেন্দ্র সিং ধোনি নি:সন্দেহে দলের পথম পছন্দ। তারপরও আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিত পন্থকে বাদ দিয়ে ১৫ সদস্যের দলে জায়গা পেয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী কার্তিক।
ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপের আগে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত স্কোয়াডে পরিবর্তন আনতে পারবে অংশগ্রহণকারী দলগুলো। দেশটির সাবেক কতিপয় খেলোয়াড়ের বিশ্বাস ৩০মে শুরু হওয়া এ মেগা ইভেন্টের ২১ বছর বয়সী পন্থকে মিস করবে টিম ইন্ডিয়া।
কার্তিকের বিষয়ে স্থানীয় টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকাকে কোহলি বলেন, ‘চাপের মুহূর্তে সে ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়েছে। এ বিষয়ে বোর্ডের সকলেই একমত হয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘তার (কার্তিক) অভিজ্ঞতা আছে। সৃষ্টি কর্তা না করুক ধোনির কিছু হলে কার্তিক উইকেটের পিছনে দায়িত্ব পালন করতে পারবে। একজন ফিনিশার হিসেবে সে ভাল করছে। সুতরাং এ ধরনের একটি টুর্নামেন্টে সামগ্রিক এক্সেপোজার ছিল যা প্রাথমকি বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।’
২০০৪ সালে এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া পর এ যাবত দেশের হয়ে ৯১টি ম্যাচ খেলেছেন কার্তিক। ব্যাটিং অর্ডারের যে কোন পজিশনে ব্যাট করার সক্ষমতার প্রমাণও দিয়েছেন তিনি।
ভারতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রি বলেন, ‘আমরা বেশ ভালভাবেই বুঝতে পারছি যে, যোগ্য কিছুৃ ব্যক্তি দলে জায়গা পায়নি- সেখানে এমন কিছু মতামত আছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘অত্যন্ত মেধাবী একটা পুল থেকে ১৫ জন বেছে নেয়া সহজ কাজ নয়। যারা সুযোগ পায়নি তাদের উদ্দেশ্যে আমি বলব, সামনে এগিয়ে যাও। প্রস্তুত হও, যদি কোন অপ্রত্যাশিত সুযোগ আসে, তখন যেন লুফে নেয়া যায়।’
ইতোপূর্বে ১৯৮৩ ও ২০১১ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। সে সময়ের তুলনায় এবারের আসরে দলটির পেস আক্রমণ বেশ ভাল। যার নেতৃত্ব দেবেন আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা জসপ্রিত বুমরাহ। ডেথ ওভার বিশেষজ্ঞ বুমরাহকে সাহায্য করবেন মোহাম্মদ সামি ও ভুবনেশ্বর কুমার। উভয়ের সুয়্যিং ক্ষমতা ইংলিশ কন্ডিশনে দলটির জন্য আরো বেশি সহায়ক হবে।
কোহলি বলেন, ‘ছেলেদের একটি কমন ফ্যাক্টর হচ্ছে তাদের আত্মবিশ্বাস। সেরা হতে পারে- সবার মধ্যেই এমন বিশ্বাস আছে। কোন কিছুর জন্যই নির্দিষ্ট কোন নিয়ম নেই-যেমন ভারতীয় স্পিনারদের, ব্যাটসম্যানদের বিশ্বের সেরা হতে হবে। বিষয়টা হচ্ছেÑ আপনার বিশ্বাস থাকতে হবে, আপনি এটা পারেন।
সাউদাম্পটনে ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে ভারত।

image_printPrint