ভেনিজুয়েলার বিরোধী দলীয় আইনপ্রণেতাকে সুরক্ষা দেবে মেক্সিকো

78

মেক্সিকো সিটি, ১৫ মে, ২০১৯ (বাসস ডেস্ক) : মেক্সিকান সরকার মঙ্গলবার জানিয়েছে, ভেনিজুয়েলায় তাদের দূতাবাস দেশটির বিরোধী দলীয় আইনপ্রণেতা ফ্রাঙ্কো ম্যানুয়েল ক্যাসেলাকে ‘নিরাপত্তা ও সুরক্ষা’ দেবে। যদিও মেক্সিকান সিটি জোর দিয়ে বলছে, তারা ভেনিজুয়েলার অভ্যন্তরীণ সংকটে হস্তক্ষেপ করছে না।
মেক্সিকোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ‘কূটনৈতিক শিষ্টাচারের সাথে সঙ্গতি রেখেই মেক্সিকান সরকার ভেনিজুয়েলার জাতীয় পরিষদের ডেপুটি ফ্রাঙ্কো ম্যানুয়েল ক্যাসেলাকে নিরাপত্তা ও সুরক্ষা দেয়ার জন্য তাকে আজ কারাকাসে মেক্সিকোর কূটনৈতিক বাসভবনে আশ্রয় দিয়েছে।’
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মেক্সিকো ‘সকল মানুষের সম্মান, তাদের সুরক্ষা ও মানবাধিকার সমুন্নত রাখার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করছে। রাজনৈতিক সম্পর্কের চেয়েও মানুষের এই অধিকার নিশ্চিত করাকে প্রাধান্য দেয় মেক্সিকো।’
মেক্সিকান সরকার ভেনিজুয়েলার অভ্যন্তরীণ সংঘাতে হস্তক্ষেপ না করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে জানায়, বামপন্থী প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ অবরাদোর সরকার ১ ডিসেম্বর দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই এটা বজায় রেখেছে।
আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল ও কলম্বিয়ার মতো ল্যাটিন আমেরিকার অন্যান্য বৃহৎ দেশগুলোর মতো মেক্সিকোও এখনো ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিকোলাস মাদুরোকেই স্বীকৃতি দিয়ে যাচ্ছে, বিরোধী নেতা ও স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট জুয়ান গুয়াইদোকে নয়।
জানুয়ারি মাস থেকে গুয়াইদো মাদুরো সরকারকে চ্যালেঞ্জ করে আসছেন। তিনি মাদুরোর পুনরায় নির্বাচিত হওয়াকে অবৈধ বলেছেন।
গত সপ্তাহে মেক্সিকান সরকার জানায়, তারা ভেনিজুয়েলার জাতীয় পরিষদের ডেপুটি এডগার জাম্বারনো’র গ্রেফতারের ঘটনায় উদ্বিগ্ন। গত মাসে মাদুরোর বিরুদ্ধে ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপর তিন আইনপ্রণেতা বিভিন্ন কূটনৈতিক কার্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। অপর একজন আইনপ্রণেতা কলম্বিয়ায় পালিয়ে গেছেন।

image_printPrint