ভেনিজুয়েলাকে ৭১ টন চিকিৎসা সরবরাহ পাঠিয়েছে চীন

55

কারাকাস, ১৪ মে, ২০১৯ (বাসস ডেস্ক) : চীন থেকে চিকিৎসা সামগ্রীবাহী দ্বিতীয় বিমানটি সোমবার ভেনিজুয়েলায় অবতরণ করেছে। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো সরকার ও চীনের মধ্যে একটি ‘মানবিক-কারিগরি’ সহযোগিতা চুক্তির অংশ হিসেবে এ সাহায্য পাঠানো হয়েছে।
খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
সরকার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ৭১ টন ঔষধ ও চিকিৎসা সামগ্রী নিয়ে একটি বোয়িং ৭৪৭ বিমান রাজধানী কারাকাসে অবতরণ করেছে।
এতে অন্ত:সত্ত্বা নারীদের জন্যও ঔষধ ও চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী কার্লোস আলভারাদো বলেন, ‘দ্বিতীয় চালানটি পৌঁছানোর ফলে এখন আমাদের দেশে ১৬৬ টন ঔষধ ও চিকিৎসা সামগ্রী রয়েছে। রাশিয়া ফেডারেশন, রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্টের কাছ থেকে ইতোমধ্যেই আমরা চিকিৎসা সামগ্রী পেয়েছি। ’
এর আগে ২৯ মার্চ চীন থেকে ৬৫ টনের একটি মানবিক সহায়তাবাহী বিমান অবতরণ করে।
পাঁচ বছরের অর্থনৈতিক অবরোধের কারণে ভেনিজুয়েলায় খাবার ও ঔষধের মতো নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।
জাতিসংঘ জানিয়েছে, তিন কোটি জনগণের প্রায় এক চতুর্থাংশেরই জরুরি ভিত্তিতে মানবিক সহায়তা প্রয়োজন।
জানুয়ারি মাসে পার্লামেন্টের স্পিকার জুয়ান গুয়াইদো নিজেকে ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা ও এর পরপরই যুক্তরাষ্ট্রসহ ৫০টির বেশি দেশ তাকে সমর্থন দিলে দেশটির রাজনৈতিক সংকট প্রকট আকার ধারণ করে।
ভেনিজুয়েলায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি বারোরং বলেন, অবরোধের ফলে দেশটির যা ক্ষতি হয়েছে এই ঔষধ সহায়তাবাহী চালানের ফলে তা কিছুটা লাঘব হবে বলে তিনি আশা করছেন।
উল্লেখ্য, মাদুরো সরকারকে চীন ও রাশিয়া সমর্থন দিচ্ছে আর যুক্তরাষ্ট্র গুয়াইদোর পাশে রয়েছে।

image_printPrint