বাসস প্রধানমন্ত্রী-২ (তৃতীয় ও শেষ কিস্তি) : খুনি ও অর্থ-পাচারকারীদের ক্ষমা নাই : প্রধানমন্ত্রী

288

বাসস প্রধানমন্ত্রী-২ (তৃতীয় ও শেষ কিস্তি)
হাসিনা-মতবিনিময়
খুনি ও অর্থ-পাচারকারীদের ক্ষমা নাই : প্রধানমন্ত্রী

গত নির্বাচনে বিএনপি’র ভরাডুবির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দলটি নির্বাচনকে প্রতিযোগিতা হিসেবে গ্রহণ না করে মনোনয়ন বাণিজ্য হিসেবে গ্রহণ করেছিল।
তিনি বলেন, ‘তারা এক একটি আসনে বেশ কয়েকজন প্রার্থীকে মনোনয়ন প্রদান করে এবং যাদের নির্বাচনে বিজয়ের সম্ভাবনা ছিল তাদেরকেই তারা বাদ দিয়ে দেয়।’
আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, তাঁর দল নির্বাচনে বিপুল বিজয় অর্জন করেছে। কারণ মহিলা এবং যুবসমাজ ব্যাপকহারে নৌকার পক্ষে ভোট দিয়েছে।
বিগত ১০ বছরের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলোর সংস্থান করতে তাঁর সরকার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
তাঁর সরকার দারিদ্র্যের হার ৪১ শতাংশ থেকে ২১ শতাংশে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সরকারের বেশ কিছু সময়োপযোগী পদক্ষেপের ফলে এ অর্থবছরের শেষ নাগাদ দেশের প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ১৩ শতাংশে গিয়ে দাঁড়াবে।’
প্রধানমন্ত্রী সংকল্প ব্যক্ত করে বলেন, এদেশে আর কেউ গৃহহীন থাকবে না, কেউ কুঁড়ে ঘরে বাস করবে না।
দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নের প্রসঙ্গ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, সরকার একটি সময়োপযোগী শিক্ষানীতি প্রণয়ন করেছে এবং মাধ্যমিক পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করছে।
দেশের কওমী মাদ্রাসাগুলো একটি দীর্ঘ সময় পর্যন্ত অবহেলিত ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা কওমী মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান প্রদান করেছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার ঝরেপড়া রোধ করতে স্কুলগুলোতে মিড ডে মিল চালু করেছে।
এ প্রসঙ্গে তিনি সরকারের এই প্রচেষ্টার সঙ্গে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে আসার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সাল নাগাদ দারিদ্র্যমুক্ত এবং উন্নত-সমৃদ্ধ করে গড়ে তোলায় তাঁর অঙ্গীকার পুনর্ব্যাক্ত করে বলেন, ‘আমরা ২০২০ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সময়কে মুজিববর্ষ হিসেবে উদযাপন করবো।’
তাঁর সরকার আগামী প্রজন্মের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়ন করছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে ৮ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি।’
শেখ হাসিনা দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদানের কথা স্মরণ করে বলেন, ‘প্রবাসীদের পাঠানো অর্থের ওপর ভিত্তি করেই দেশের অর্থনীতি এখন শক্ত ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।’
ভাষণের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী দেশের জনগণ এবং প্রবাসীদের মাহে রমজানের মোবারকবাদ জানান।
তিনি সকলকে আগাম ঈদ শুভেচ্ছাও জানান।
বাসস/এসএইচ/অনুবাদ-এফএন/২৩২০/বেউ/-এবিএইচ