বাসস দেশ-১৯ : স্ট্রোক রোগীকে দ্রুত চিকিৎসা দেয়া সম্ভব হলে এর ঝুঁকি থেকে রক্ষা করা সম্ভব

বাসস দেশ-১৯
সেমিনার-স্ট্রোক
স্ট্রোক রোগীকে দ্রুত চিকিৎসা দেয়া সম্ভব হলে এর ঝুঁকি থেকে রক্ষা করা সম্ভব
ঢাকা, ৯ জুন ২০১৮ (বাসস) : ‘স্ট্রোক রোগীকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়া হলে ব্রেইন ডেমেজ, স্ট্রোক এর জটিলতা প্রতিরোধ, বিকলাঙ্গতা এবং পুনরায় স্ট্রোক ঝুঁকি থেকে রক্ষা করা সম্ভব।’
আজ শনিবার বিকালে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা একথা বলেছেন। রাজধানীর ইমপালস্ হাসপাতাল অডিটরিয়ামে ‘স্ট্রোক : অধিক সচেতনতা এবং দ্রুত চিকিৎসা’ শীর্ষক এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়। ইমপালস্ হাসপাতাল ও ডেইলি বাংলাদেশ পোস্ট যৌথভাবে এই সেমিনারের আয়োজন করে।
বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা আরও বলেন, স্বাস্থ্য খাতে সরকারের কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে স্টোকের উন্নত চিকিৎসা এখন এদেশেই করা সম্ভব হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, দেশের হাসপাতালগুলোতে যত রোগি মারা যায় তার ২০ ভাগই স্ট্রোকের কারণে ঘটে। এ পরিসংখ্যান সরকারি হাসপাতালের। তবে বেসরকারি হাপাতালের পরিসংখ্যান আমাদের কাছে নেই।
এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধান তথ্য কর্মকর্তা কামরুন নাহার। ইমপালস হাসপাতালের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা: ওয়াদুদ আলী খান, হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডাঃ দবির উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ পোষ্ট এর প্রধান সম্পাদক শরীফ শাহাবুদ্দিন, ডা: অধ্যাপক আনিসুল হক, আইসিটি বিভাগের পরামর্শক অজিত কুমার সরকার, ডা: শামসুল হক প্রমুখ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইমপালস হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট (নিউরোলজিস্ট অ্যান্ড স্ট্রোকের হেড) ডাঃ মো শহীদুল্লাহ (সবুজ)। স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ডা: জাহীর আল আমীন।
বাংলাদেশে মৃত্যুর দ্বিতীয় প্রধান কারণ হচ্ছে স্ট্রোক উল্লেখ করে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা বলেন, স্ট্রোক হলে মাথা ঝিমঝিম করা, প্রচন্ড মাথা ব্যথার সাথে ঘাড়, মুখ এবং দুই চোখের মাঝখান পর্যন্ত ব্যথা হওয়ার লক্ষণ দেখা যায়। এছাড়া হাঁটতে কিংবা চলাফেরা করতে এবং শরীরের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে সমস্যা হওয়া, কথাবার্তা জড়িয়ে যাওয়া, শরীরের একপাশে অসাড় কিংবা প্যারালাইজড হয়ে যাওয়া, চোখে অস্পষ্ট দেখা, অন্ধকার দেখা কিংবা ডাবল ডাবল দেখা, বমি বমি ভাব কিংবা বমি হওয়া ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়।
বাসস/সবি/এফএইচ/২৩৩০/-শহক