আধুনিক প্রযুক্তির সাথে সামঞ্জস্যতা রেখে চলতে হলে সম্মলিতভাবে কাজ করতে হবে : পলক

100

ঢাকা, ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ (বাসস) : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আগামী দিনে পরিবর্তিত ও আধুনিক প্রযুক্তির সাথে সামঞ্জস্যতা বজায় রেখে চলতে হলে উন্নত ও অনুন্নত দেশসমূহসহ সকলকে সম্মলিতভাবে কাজ করতে হবে।
তিনি আজ বাহরাইনের রাজধানী মানামায় অনুষ্ঠিত ‘গ্লে¬াবাল এন্টারপ্রেইনরশীপ কংগ্রেস’-২০১৯ সম্মেলনের “স্টার্টআপ নেশনস্ মিনিস্ট্রিরিয়াল” শীর্ষক অধিবেশনে বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন।
‘পলিসি সেশন’ আলোচনায় জুনাইদ আহমেদ পলক উদ্ভাবন পরিকল্পনা, উদ্যোক্তা একাডেমি প্রতিষ্ঠা, হাই-টেক পার্ক প্রকল্প ও ইনোভেশন সেন্টার প্রকল্প স্থাপন, আইটি প্রশিক্ষণ ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি, তরুণ প্রজন্মের সক্ষমতা অর্জন এবং তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন ও বিকাশে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন অর্জন কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন।
আজ সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।
এতে বলা হয়, ওই সেশনে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির কোন ভৌগোলিক সীমারেখা নেই। ডিজিটাল বিপ্লবে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে উল্লে¬খ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের দ্রুতগতির ইন্টারনেটের যুগে প্রবেশ করেছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলার মাধ্যমে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠার জন্য ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রূপকল্প-২০২১ ঘোষণা করেছেন। এই রূপকল্প বাস্তবায়নে চারটি মূল লক্ষ্য নির্ধারণ করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলে প্রতিমন্ত্রী উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের সেই চারটি পিলার হলো মানবসম্পদ উন্নয়ন, ইন্টানেটের সংযোগ দেয়া, ই-গভর্নেন্স এবং তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পখাত গড়ে তোলা। এই চারটি পিলারে বাংলাদেশকে দাঁড় করানো হচ্ছে।’
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, ইটালি, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, সুদান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, আর্জেন্টিনা, বেনিন, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, ইস্তোনিয়া, গ্রানা, হাঙ্গেরীসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী, উচ্চ পর্যায়ের সরকারি ও বেসরকরি প্রতিনিধিরা এতে অংশগ্রহণ করেন।

image_printPrint